ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়া আমাদের লক্ষ্য : ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ

পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন-পিকেএসএফ’র চেয়ারম্যান স্বনামধন্য অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেছেন, আমাদের সমাজে কিছু মানুষ আছেন যারা অনেক পিছিয়ে। সেই পিছিয়ে পড়া মানুষদের জন্যই সহযোগী সংস্থাগুলোর মাধ্যমে কাজ করছে পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ)। আর পিকেএসএফের একটি সহযোগী সংস্থা প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি। প্রয়াস যেভাবে করছে তা প্রশংসনীয়, আশা করছি আগামীতে আরো ভালো কাজ করতে পারবে।
শনিবার বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জর সদর উপজেলার গোবরতলা ইউনিয়নের আমারকে পিকেএসএফের লিফট কর্মসূচির আওতায় প্রয়াসের বাস্তবায়নাধীন টার্কির প্যারেন্টস্টক ও ভেড়ার ব্রিডিং খামার উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. কাজী খলীকুজ্জমান এসব কথা বলেন।
প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেনের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে পিকেএসএফ চেয়ারম্যান আরো বলেন- আমরা যদি এগিয়ে যেতে চাই তাহলে সবাইকে একসাথেই এগিয়ে যেতে হবে। প্রয়াস সকলকে একসঙ্গে নিয়ে কাজ করছে, মানুষকে সুসংগঠিত করার চেষ্টা করছে। মানুষের মধ্যে এমন একটা চিন্তা জাগিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে যে চিন্তায় নিজের অগ্রগতি হবে ও আশেপাশের সকলের অগ্রগতি হবে, সবার জীবন সুন্দর হবে। আমরা চাই সবার জীবন সুন্দর হোক। অনেক মানুষ বঞ্চিত আছে। তাদের বঞ্চনা থেকে মুক্ত করতে প্রয়াস আমাদের বিভিন্ন ধরনের সহায়তা করছে। তাই আমরা প্রয়াসের পাশে আছি।
তিনি আরো বলেন, আমরা আশা করছি প্রয়াস যে ধরনের এখন সুযোগগুলো তৈরী করেছে বা করছে সামনে আরো বেশি করে সমাজের সুবিধাবঞ্চিত লোকদের সেবা করবে।
পিকেএসএফ চেয়ারম্যান উপকারভোগীসহ সকলের উদ্দেশে বলেন-আপনারা বাড়িতে টার্কি, ভেড়া বা গাড়ল পালন করুন, তাতে আপনাদের আয় বৃদ্ধি পাবে। আর আয় বাড়লে আপনি আপনার ছেলেমেয়েকে স্বাধীনভাবে পড়ালেখা করাতে পারবেন, চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পারবেন। সংসারে স্বচ্ছলতা আসবে। আপনাদের জন্য প্যারামেডিক চিকিৎসক রয়েছে। প্রয়াস আপনাদের জন্য শিক্ষা, স্বাস্থ্য নিয়েও কাজ করছে, প্রয়োজনে আগামীতে আরো ভালো চিকিৎসকের ব্যবস্থা করা হবে।
পিকেএসএফের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (প্রশাসন) ড. মো. জসীম উদ্দিন বলেন, টার্কি, ভেড়া, ছাগল, গরু এই প্রাণীগুলো আমরা নিজেদের বাড়িতে পালন করবো। এ থেকে আমরা জীবিকা নির্বাহও করতে পারব। আপনাদের সংসারে স্বচ্ছলতা আসবে ও সেই সাথে আমাদের দেশও দারিদ্র্য মুক্ত হবে। এই এলাকার উন্নয়নের জন্যই পিকেএসএফ এসব পরিকল্পনা করেছে এবং বাস্তবায়ন করছে প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি। প্রয়াস মানবিক সোসাইটি এ প্রতিষ্ঠানটির মধ্যে মানবিকতা রয়েছে।
তিনি আরো বলেন- পৃথিবীতে যদি একটি সুন্দর সমাজ তৈরি করতে না পারি তাহলে পৃথিবীতে আসা ব্যর্থ হয়ে যাবে। ড. জসিম বলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর আমরা পরিবর্তন চাই। কারণ আমাদের একটি উদ্দেশ্য আছে, সেই উদ্দেশ্য হচ্ছে টেকসই উন্নয়ন। ২০৩০ সালের মধ্যে আমাদের কিছু লক্ষ্য আছে সেগুলো আমাদের অর্জন করতে হবে। আর সেই লক্ষ্য অর্জনে বলা হয়েছে কাউকে বাদ দিয়ে নয়, কাউকে বাদ দিয়ে উন্নয়ন সম্ভব না।
বিকেল ৩টায় উন্নয়নবিদ ও পরিবেশকর্মী ড. খলীকুজ্জমান সদর উপজেলার গোবরতলা ইউনিয়নের আমারকে পৌঁছালে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সদস্যরা তাদের ঐতিহ্যানুযায়ী তাকে স্বাগত জানায়। এরপর তিনি লিফট কর্মসূচির আওতায় সেখানে টার্কির প্যারেন্টস্টক ও ভেড়া ব্রিডিং খামার উদ্বোধন করেন। এ উপলক্ষে খামারে পিকেএসএফ চেয়ারম্যানসহ ড. জাহেদা আহমদ, পিকেএসএফের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (প্রশাসন) ড. জসীম উদ্দিন ও প্রয়াসের নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেন আমগাছের চারা রোপণ এবং পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন। পরে তিনি খামারিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মোস্তাফিজুর রহমান, হর্টিকালচার সেন্টারের জার্ম প্লাজম কর্মকর্তা মো. জহরুল ইসলাম, গোবরাতলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আসজাদুর রহমান।
আলোচনা সভা শেষে ৩জন নারী সদস্যের মাঝে ১৫টি করে টার্কির বাচ্চা, ৫ কেজি করে টার্কির খাবার, ২টি করে জীবাণুনাশক বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।
বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত পিকেএসএফ চেয়ারম্যান সন্ধ্যায় সদর উপজেলার পলশায় প্রয়াস ফোক থিয়েটার ইনস্টিটিউটের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা উপভোগ করেন। এরপর স্ত্রীসহ তিনি রেডিও মহানন্দার লাইভ অনুষ্ঠান ‘কাছে থেকো বন্ধু’তে অংশগ্রহণ করেন এবং শ্রোতাদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।
এর আগে পিকেএসএফ চেয়ারম্যান সকাল ১০টায় জেলা শহরের বেলেপুকুরস্থ প্রয়াসের প্রধান কার্যালয়ে এসে পৌঁছালে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান প্রয়াসের নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেনসহ অন্য কর্মকর্তারা। এ সময় ড. কাজী খলীকুজ্জমানকে প্রয়াসের পক্ষ থেকে লালগালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়।
পরে তিনি সদর উপজেলার রানীহাটি ইউনিয়নে সমৃদ্ধি কর্মসূচির আওতায় আয়োজিত স্বাস্থ্য ক্যাম্পের উদ্বোধন এবং সেখানে তিনি নিজের বি.পি চেক করান। সমৃদ্ধি শিক্ষা সহায়তা কেন্দ্রের শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত পিকেএসএফ চেয়ারম্যান সেখানে প্রবীণ সমাবেশে অংশ নিয়ে তাদের মধ্যে ৮০ জনকে ১টি করে কম্বল, ২০ জনকে ১টি করে লাঠি, ২ জনকে ১টি করে হুইল চেয়ার ও ১০০ জনকে এক মাসের ৫০০ টাকা করে পরিপোষক ভাতা বিতরণ করেন। একই অনুষ্ঠানে তিনি ৩জন শ্রেষ্ঠ প্রবীণ ও ৩ জন শ্রেষ্ঠ সন্তানদের হাতে সম্মাননা স্মারক, সনদপত্র, সম্মানী তুলে দেন। এরপর তিনি সমৃদ্ধি কর্মসূচিতে নিয়োজিত শিক্ষক ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।
ঢাকা স্কুল অব ইকোনমিকসের প্রতিষ্ঠাতা ড. কাজী খলীকুজ্জমান রানীহাটিতে পিঠা উৎসব পরিদর্শন করেন। অংশ নেন নবীন-প্রবীণ ফুটবল খেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে। এর আগে প্রধান অতিথি হিসেবে ফুটবলে কিক মেরে খেলার উদ্বোধন এবং শেষে পুরস্কারও বিতরণ করেন।
রানীহাটিতে সমৃদ্ধি কর্মসূচি পরিদর্শনকালে সমাবেশে দারিদ্র্য বিমোচনে অবদানের জন্য একুশে পদকে ভূষিত ড. খলীকুজ্জমান বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বপ্ন দেখেছিলেন ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত একটি সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশের। আমরা প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটিসহ বিভিন্ন সহযোগী সংস্থার মাধ্যমে দেশে ‘সমৃদ্ধি’ নামে একটি প্রকল্পসহ দারিদ্র্য দূরীকরণে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছি। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে দারিদ্র্য দূরীকরণের পাশাপাশি নারী-পুরুষের সমান অধিকার প্রতিষ্ঠা করে, সোনার মানুষ করে, দেশটাকে সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তুলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলা। তিনি আরো বলেন- বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন সবাইকে নিয়ে বাংলাদেশটাকে গড়তে। আমরা সেই কাজটা করছি। এটাই মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা।
ড. কাজী খলীকুজ্জমান বলেন- প্রয়াস বেসরকারি একটা এনজিও, মানবকল্যাণে কাজ করে। প্রয়াস আপনাদের পাশে আছে, থাকবে। আমরা প্রয়াসের পাশে আছি এবং থাকব। আপনারাও আমাদের পাশে থাকবেন।
সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন পিকেএসএফের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মো. জসীম উদ্দিন ও রানীহাটি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মহসিন আলী, কৃষ্ণগোবন্দিপুর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ রফিউজ্জামান। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রানীহাটি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মহসিন আলী ।
দিনভর প্রয়াসের কার্যক্রম পরিদর্শনের সময় পিকেএসএফ চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমানের সঙ্গে ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসপ্রাপ্ত অধ্যাপক ড. জাহেদা আহমদ, প্রয়াসের পরিচালক মুখলেছুর রহমান, রেডিও মহানন্দার স্টেশন ম্যানেজার আলেয়া ফেরদৌস, জ্যেষ্ঠ উপ-পরিচালক নাসের উদ্দিন, সহকারী পরিচালক তাজেমুল হক, সহকারী পরিচালক (নিরীক্ষণ) আবুল খায়ের খান, কনিষ্ঠ সহকারী পরিচালক মু. তাকিউর রহমান, কর্মসূচি ব্যবস্থাপক ফারুক আহম্মেদ, ফিরোজ আলমসহ প্রয়াসের অন্য কর্মকর্তারা।